381 Views
ঢাকা প্রিমিয়ার লীগ

লিটনের বিধ্বংসী ইনিংসে দোলেশ্বরের টানা দ্বিতীয় জয়

তামজিদুর রহমান
Published Date: 13 Feb 2018 | Update :

সাভারের বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে আজ ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের ১৪ তম ম্যাচে মুক্তার আলির কলাবাগান ক্রীড়া চক্রকে ৮ উইকেটে পরাজিত করেছে প্রাইম দোলেশ্বর। আর এরই সাথে টুর্নামেন্টে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিলো ফরহাদ রেজার দল।   

এদিন সকাল ৯টায় শুরু হওয়া এই ম্যাচে টসে হেরে শুরুতে  ব্যাটিং করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে মোহাম্মদ আশরাফুল ও তাইবুর রহমানের জোড়া শতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ২৯০ রান সংগ্রহ করে কলাবাগান।  

জবাবে ২৯১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাসের ঝড়ো সেঞ্চুরিতে ৩০ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় দোলেশ্বর। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত লিটন অপরাজিত থাকেন ১২৩ বলে ১৪৩ রানে। তাঁর ইনিংসে ছিলো ৩টি ছয় এবং ১৪টি চার। আর ৯১ রান করে তাঁকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন মার্শাল আইয়ুব। 

এর আগে প্রাইম দোলেশ্বরের ইনিংসের শুরুতে দুই ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন এবং লিটন কুমার দাস জুটি গড়েন ৮৫ রানের। ৪০ রান করা ইমতিয়াজকে তাসামুল হকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে এই জুটি ভাঙ্গতে সক্ষম হয়েছিলেন কলাবাগানের ভারতীয় রিক্রুট যতিন সাক্সেনা।

ইমতিয়াজ ফিরে গেলে নতুন ক্রিজে আসা ব্যাটসম্যান ফজলে মাহমুদকে সাথে নিয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন জাতীয় দলের উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন দাস। দলকে শত রানের কোটা পার করানোর পাশাপাশি লিটন তুলে নেন দারুণ একটি অর্ধশতকও। তবে ১৬ রান করে সাক্সেনার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হয়েছেন ফজলে মাহমুদ। 

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান মার্শাল আইয়ুবকে সাথে নিয়ে ১৭০ রানের জুটি গড়েন লিটন। আর এরই সাথে দলকে ৮ উইকেটের বিশাল জয় এনে দেয়ার পাশাপাশি দুর্দান্ত একটি শতকও তুলে নেন জাতীয় দলের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।  

কলাবাগানের ইনিংস-

আজকের এই ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দোলেশ্বর অধিনায়ক ফরহাদ রেজা। রেজার আমন্ত্রণে ব্যাটিংয়ে নেমেই দোলেশ্বর বোলারদের তোপের মুখে পড়ে মুক্তার আলির কলাবাগান। মাত্র ১২ রানের মাথায় ওপেনার তাসামুল হককে ফিরিয়ে দিয়ে প্রথম ব্রেক থ্রু পেয়েছিলেন দোলেশ্বরের পেসার মানিক খান। 

৪২ রানের মাথায় আরেক ওপেনার জসিমউদ্দিনকেও ফিরিয়ে দিয়ে কলাবাগানকে আবারো বিপদে ফেলেন স্পিনার আরাফাত সানি। টিকতে পারেননি কলাবাগানের ভারতীয় রিক্রুট যতিন সাক্সেনাও। মাত্র ১ রান করে মানিক খানের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরতে হয়েছে তাঁকে। 

মাত্র ৪৭ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসা কলাবাগানকে এরপর বিপদ থেকে উদ্ধার করেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আশরাফুল। দারুণ একটি শতক হাঁকিয়ে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন তিনি। যদিও সেঞ্চুরির পর পরই আরাফাত সানির বলে আউট হয়ে ফিরতে হয়েছে তাঁকে (১০৪)।

তবে আশরাফুল ফিরলেও সেঞ্চুরি তুলে নেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান তাইবুর রহমানও। দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে ইনিংসের শেষ পর্যন্ত ১১৪ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর তাইবুরের সাথে ৪০ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক মুক্তার আলি।  প্রাইম দোলেশ্বরের পক্ষে ২টি করে উইকেট শিকার করেছেন মানিক খান এবং আরাফাত সানি।  

কলাবাগান ক্রীড়া চক্র একাদশ- 

তাসামুল হক, জসিমউদ্দিন, মোহাম্মদ আশরাফুল, তাইবুর রহমান, যতিন সাক্সেনা, আবুল হাসান, মুক্তার আলি (অধিনায়ক), মাহমুদুল হাসান, ফারুক হোসেন, শাহাদাত হোসেন, নাবিল সামাদ।  

প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব একাদশ- 

লিটন কুমার দাস, আরাফাত সানি, ইমতিয়াজ হোসেন, ফরহাদ রেজা (অধিনায়ক), ফরহাদ হোসেন, মোহাম্মদ আরাফাত, ফজলে মাহমুদ, শরিফুল্লাহ, মার্শাল আইয়ুব, মানিক খান, রায়ান টেন ডেসকাট।