108 Views
ত্রিদেশীয় সিরিজ

আগ্রাসী খেলেই অপূর্ণতা ঘুচাতে চান সাব্বির

সৈয়দ সামি
Published Date: 13 Jan 2018 | Update : 13 Jan 2018

আগামী মাসেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চার বছরে পদার্পণ করবেন টাইগার হার্ড হিটার সাব্বির রহমান। সিনিয়র ক্রিকেটার না হলেও, সাব্বির বাংলাদেশের তিন ফরম্যাটের দলেই স্থায়ী। তবে, ক্যারিয়ারের এই পর্যায়ে এসেও একটি হতাশা রয়ে গেছে সাব্বিরের।


তিন সংস্করণ মিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৮৯টি ম্যাচ খেলে ফেলেছেন এই টাইগার তারকা। তারপরও কোনো সেঞ্চুরির দেখা পাননি তিনি। এই আক্ষেপ পোড়াচ্ছে সাব্বিরকেও। শনিবার, সংবাদ মাধ্যমের সাথে আলাপকালে সাব্বির জানিয়েছেন, আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজেই অপূর্ণতা ঘুচাতে চান তিনি।


সাব্বিরের ভাষ্যমতে, “আপনারা যেমন হতাশ, আমিও আসলে এটা নিয়েই হতাশ সে সেঞ্চুরি করতে পারিনি। চেষ্টা করছি সেঞ্চুরির। আশা করছি, দ্রুতই সেঞ্চুরি করতে পারব। এই সিরিজে নিজের খেলাটা খেলতে পারব। চাইব আগ্রাসী থেকে নিজের খেলাটা খেলতে।"


সাব্বিরের বড় শট খেলার সামর্থ্য নিয়ে কারোর প্রশ্ন থাকার কথা নয়। তবে, তার বড় ইনিংস খেলার সামর্থ্য নিয়ে যে কেউ আঙুল তুলবে তার দিকে। অনেকেই মনে করেন টেম্পারমেন্টের ঘাটতি থাকায় বড় ইনিংস খেলতে পারেন না সাব্বির। সাব্বির অবশ্য টেম্পারমেন্টে ঘাটতি থাকার বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছেন।


“এটা টেম্পারেমেন্টের ব্যাপার না। আমার খেলাই আসলে এমন। আগে যখন তিন নম্বরে খেলতাম, তখন ব্যাপারটা অন্য রকম ছিল। এখন ছয়-সাত বা পাঁচ-ছয়ে খেলব। আমি যখন যেখানে খেলার সুযোগ পাব, চেষ্টা করব পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলার। এখন আমি চিন্তা করছি, কখন কিভাবে খেলা উচিত তা নিয়ে। যদি উইকেটে থাকি, ম্যাচ শেষ করব।”


গত বছর ব্যাট হাতে বাজে সময় গেছে সাব্বির রহমানের। তবে, আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে চান তিনি, “ব্যক্তিগতভাবে আমি ভালোভাবেই প্রস্তুত। যদিও গত কয়েকটা ম্যাচ আমার খারাপ গেছে। চেষ্টা করেছি, আমার যেটা দুর্বল জায়গা, সেটা শক্ত করার জন্য। ওটা নিয়ে কাজ করেছি। এখন দেখা যাক, সামনে ম্যাচ আসছে। ভালো করার চেষ্টা করব।”


নিজের দুর্বলতা কাটিয়ে পারফর্ম করতে মরিয়া এই টাইগার ক্রিকেটার, “স্পিন খেলা নিয়ে কাজ করেছি। ফ্রন্ট ফুট নিয়ে কাজ করেছি। নেটে একা এগুলো নিয়ে কাজ করেছি। যে দুর্বলতা ছিলো, তা সারিয়ে ওঠার করার চেষ্টা করেছি। ম্যাচে রান পাওয়া আসলে কপালের ব্যাপার। রান না পেলেই টেকনিক ভালো না, রান করলে ভালো; ব্যাপারটা সেরকম নয়। আমি চেষ্টা করছি, দুর্বলতাগুলো যেন ফিরে না আসে।”