ফিট হয়েও ফিট নন নাফীস!

ফিট হয়েও ফিট নন নাফীস!

চলতি সপ্তাহেই আইরিশ ‘এ’ দলের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলবে টাইগার ‘এ’ দলের খেলোয়াড়রা। সপ্তাহখানেক আগেই আসন্ন সিরিজটির জন্য ১৪ সদস্যের ‘এ’ দল ঘোষণা করেছে নির্বাচকরা।

তবে সেখানে জায়গা হয়নি ওপেনার শাহরিয়ার নাফীসের। বিগত ২-৩ বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন নাফীস। বিপিএল, এনসিএল, ডিপিএল ঘরোয়া ক্রিকেটের সবখানেই নিজেকে প্রমাণ করেছেন তিনি।

কিন্তু এবারের চলতি জাতীয় লীগে খেলা হচ্ছেনা এই বাঁহাতি ওপেনাররের। নাকের অস্ত্রোপচারের কারণে ঠিকভাবে অংশ নেননি এই লীগে। আর দল ঘোষণার পর নির্বাচকরা জানিয়েছিলেন, নাফীস তাদের বিবেচনায় ছিলেন।

কিন্তু যেহেতু তার অপারেশন হয়েছে তাই তাকে দলে নেননি তারা। হাবিবুল বাশার জানান, ‘নাফীস আমাদের বিবেচনায় ছিল। কিন্তু ওর একটা অস্ত্রোপচার হয়েছে নাকে। তাই আমরা ওকে দলে রাখিনি।’

এদিকে নাকের অস্ত্রোপচারের পর এখন সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন নাফীস। উত্তরায় অনুশীলনও চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ফিটনেস ধরে রাখার জন্যও জিমেও ঘাম ঝরাচ্ছেন নিয়মিত। এসব কথা নির্বাচক বাশারকে জানানোর পর, তিনি জানান ‘আসলে ও এই বছরে কোন ম্যাচ খেলেনি। তাই আমরা জানিনা ওর ফিটনেসের কি অবস্থা।’

বাসার আরও জানান, ‘নাফীস শেষ ম্যাচ খেলেছে জুন মাসে। আর এখন অক্টোবর মাস। চার মাস পেরিয়ে গেছে। এর মধ্যে ওর ফিটনেসের কি অবস্থা তা আমরা জানিনা। তার উপর নাকের অস্ত্রোপচারের কারণে জাতীয় লিগ খেলছে না। তাই ধরেই নেওয়া যায় খেলার মতো ফিটনেস ওর নেই।’

কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে বিগত তিন বছরে নাফীসের পারফর্মেন্সে পরিসংখ্যান বাশারের কাছে তুলে ধরার পর তিনি জানান, ‘ও আমাদের বিবেচনায় ভালো মতোই ছিল। কিন্তু ও জাতীয় লিগ খেলেনি তাই আমরা ওর বর্তমান অবস্থা জানিনা।’

অন্যদিকে মঙ্গলবার বিকেলে ফিল্ডিং অনুশীলনের সময় আল-আমিন জুনিয়রের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন সাইফ হাসান। এমনকি আসন্ন সিরিজ থেকে ছিটকেও গিয়েছেন তিনি।

সাইফ ছিটকে যাওয়ার কারণে দলে ডাক পেয়েছেন মিডেল অর্ডার ব্যাটসম্যান মেহেদী হাসান। কিন্তু প্রশ্ন উঠে কেন একজন ওপেনারের পরিবর্তে মিডেল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে সুযোগ দিলো নির্বাচকরা?

নাফীস নিজেও এর উত্তর জানাননা। তিনি বলেন, ‘আমি জানিনা এসব ব্যপারে। শুনেছি আমার নাকের ইনজুরির কারণে এ দলে নেওয়া হয়নি। এই বছরে জাতীয় লিগে খেলতে পারিনি কিন্তু আগের তিন বছরে ফার্স্ট ক্লাসে তিন হাজার রান করেছি। তবে এখন আমি সম্পূর্ণ সুস্থ।

গত কয়েক দিন থেকেই অনুশীলন করছি। গতকাল একটা প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছি। নিয়মিত জিম করছি। আল্লাহর রহমতে ফিটনেসও ভালো। সুযোগ দিলে খেলার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত আছি।’

উল্লেখ্য যে, গত মৌসুমে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১২ ম্যাচে ৬২.০৫ গড়ে ১১১৭ রান করেছেন নাফীস। যেখানে ৩টি শতক ও ৭ অর্ধশতকও আছে তার।  এর আগের মৌসুমে ১০ ম্যাচে ৬৪.২৩ গড়ে ২ সেঞ্চুরি ও ৭ ফিফটিতে করেছিলেন ১০৯২ রান।

আর জাতীয় দলের হয়ে ২৪ টেস্টে ১২৬৭ রান ও ৭৫ ওয়ানডেতে চারটি সেঞ্চুরিসহ ২২০১ রান করেছেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান।

Posts Carousel

এই মাত্র

সর্বাধিক মন্তব্য

ভিডিও