‘বিশ্বমানের’ বাংলাদেশ দলের উচ্ছ্বসিত প্রশংসায় অজি পেসার হ্যাজেলউড

‘বিশ্বমানের’ বাংলাদেশ দলের উচ্ছ্বসিত প্রশংসায় অজি পেসার হ্যাজেলউড

বিশ্ব ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার পেস আক্রমণ বরাবরই বেশ শক্তিশালী। একটা সময় অজিদের পেস আক্রমণকে নেতৃত্ব দিয়েছেন গ্ল্যান ম্যাকগ্রা, ব্রেট লির মতো কিংবদন্তী পেসাররা। পরবর্তীতে তাদের সেই স্থান দখল করেছেন মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজেলউড, জেমস প্যাটিনসন, প্যাট কামিন্সরা।

তবে এরপরেও তাদের পেস আক্রমণের ক্ষুরধার এতটুকুও কমেনি। কিন্তু অন্যান্য দেশে অজি পেসাররা বল হাতে রাজত্ব করতে সক্ষম হলেও উপমহাদেশের উইকেটে সেই তুলনায় তাদের পারফর্মেন্স কিছুটা ম্রিয়মাণ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পেসাররা কতটা ভালো করতে পারবে এই নিয়ে তাই দেশটির গণমাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা। তার ওপর এবার ইনজুরির কারণে দলে থাকছেন না স্পিড স্টার মিচেল স্টার্ক এবং জেমস প্যাটিনসন ।

ফলে অজিদের পেস ডিপার্টমেন্ট অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়েছে তা বলাই বাহুল্য। তবে স্টার্ক এবং প্যাটিনসনের অনুপস্থিতি খুব একটা ভোগাবে না দলকে বলে মনে করছেন অজিদের আরেক পেস স্তম্ভ জশ হ্যাজেলউড। বাংলাদেশ সফরের জন্য মুখিয়ে থাকা হ্যাজেলউড টেস্টে ভালো খেলার ব্যাপারে দৃঢ় প্রত্যয়ী।

উপমহাদেশের উইকেটের কথা মাথায় রেখে অস্ট্রেলিয়া দলে স্পিনারদেরকেই প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। আর তাই মিচেল স্টার্কের পরিবর্তে শেষ মুহূর্তে দলে ডাক পেয়েছেন লেগ স্পিনার মিচেল সোয়েপসন। তাঁর পাশাপাশি আছেন নাথান লায়ন এবং অ্যাস্টন অ্যাগারদের মতো অভিজ্ঞ স্পিনাররা।

সুতরাং দলে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আসলেও সম্মিলিত প্রচেষ্টাতে টাইগারদের বিপক্ষে ভালো করা সম্ভব জানিয়ে রবিবার সাংবাদিকদের হ্যাজেলউড বলছিলেন, ‘দলে দ্রুতই কিছু পরিবর্তন এসেছে এবং কিছু স্পিনার যুক্ত হয়েছে, তবে যতক্ষণ না আমরা একসাথে কাজ করছি আমার মনে হয় আমরা ঠিক থাকবো।’

বাংলাদেশ সফরে পেস আক্রমণকে নেতৃত্ব দিবেন হ্যাজেলউড। বল হাতে নিজের সামর্থ্য প্রমাণ করার জন্য তাই অপেক্ষায় আছেন ২৬ বছর বয়সী এই অজি পেস তারকা।হ্যাজেলউড বলছিলেন,

‘আমি এই সফরে নিজেকে একজন পেস ডিপার্টমেন্টের নেতা হিসেবে দেখছি। আমি দলে প্রথম আসার পর থেকে অনেক পরিবর্তন এসেছে এবং এখন আমি জুনিয়র থেকে সিনিয়র ক্রিকেটারের পরিণত হয়েছি, সুতরাং আমি চেষ্টা করবো বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে।’

এখানেই থামেননি হ্যাজেলউড। বাংলাদেশকে প্রশংসায়ও ভাসিয়েছেন তিনি। নিজেদের মাটিতে বাংলাদেশ কতটা ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে তার প্রমাণ গত ইংল্যান্ড সিরিজেই দিয়েছে মুশফিকুর রহিমের দল। ইংলিশদের বিপক্ষে গত বছর ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ১-১ এ ড্র করেছিলো বাংলাদেশ।

ফলে বাংলাদেশ সিরিজ যে খুব একটা সহজ হবে না সেটি বেশ ভালোই উপলব্ধি করছেন হ্যাজেলউড। অজি এই পেস তারকা বলেন, ‘তারা বিশ্বমানের একটি দল। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তাঁরা অসাধারণ পারফর্ম করেছে এবং নিজেদের মাটিতেও তাঁরা দুর্দান্ত খেলছে। আমরা তাদের হালকাভাবে নিতে পারবো না এটা নিশ্চিত।’

উল্লেখ্য আগামী ১৮ই আগস্ট বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি টেস্টের সিরিজ খেলতে আসবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ২৭ তারিখে।

Posts Carousel

এই মাত্র

সর্বাধিক মন্তব্য

ভিডিও